কমলগঞ্জে বিক্রেতা ও ঔষধ বিক্রয় প্রতিনিধিদের আকস্মিক বিরোধে এক ঘন্টা সকল ফার্মেসী বন্ধ

মুখোমুখি প্রতিদিন ডেস্ক ঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভা এলাকায় ঔষধ বিক্রয় প্রতিনিধিদের সংগঠন “ফারিয়া” সকল ফার্মেসীতে গত বুধবার (২৫ আগষ্ট) একটি পত্র প্রেরণের সূত্র ধরে বিক্রেতা ও ঔষধ বিক্রয় প্রতিনিধিদরে মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ বিরোধের জের ধরে উল্টো ফার্মেসী মালিকরা শুক্রবার (২৫ আগষ্ট) রাতে জরুরী সভা করে কমলগঞ্জে ফারিয়া প্রতিনিধিদের মাধ্যমে ঔষধ না কেনার সিদ্ধান্ত নিলে শনিবার সকালে ফারিয়ার সদস্যরা হর্ণ বাজিয়ে আকস্মিকভাবে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা বের করলে শনিবার সকাল ১১টা থেকে পৌরসভা এলাকার সকল ঔষধের দোকান এক ঘণ্টা বন্ধ রাখা হয়। পৌর এলাকায় আকস্মিকভাবে সবগুলো ফার্মেসী বন্ধ রাখায় জন দুর্ভোগ সৃষ্টি হলে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিদের হস্তক্ষেপে ফার্মেসী মালিক ও ফারিয়া সদস্যদের মাঝে সাময়িকভাবে সমঝোতা হয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কমলগঞ্জ পৌরসভা এলাকার ঔষধ বিক্রয় প্রতিনিধি সংগঠন ফারিয়ার সভাপতি ফয়সল আহমদ ও সাধারন সম্পাদক জালাল আহমদ স্বাক্ষরিত গত ২৪ আগষ্ট বুধবার সকল ফার্মেসীতে পত্র প্রেরণ করা হয়। সে পত্রে উল্লেখ করা হয়, ফারিয়ার সদস্যরা সবাই মোটামোটি উচ্চ শিক্ষিত। তাদের শিক্ষার যোগ্যতা অনুসারে অনেক সময় সম্মান পান না। তাদের থেকে ফার্মেসীগুলো ঔষধের চাহিদা দিয়ে ঔষধ নিয়ে সময়মত বিল পরিশোধ করেন না। এতে তাদের অনেক সমস্যা হয়। আগামীতে চাহিদাপত্র দিয়ে ঔষধ নিলে ৩০ তারিখের মধ্যে বিল পরিশোধ করতে হবে। অন্যতায় তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। ফারিয়ার প্রেরিত এ পত্রে কমলগঞ্জ পৌরসভা এলাকার সকল ফার্মেসী মালিক গত শুক্রবার(২৫ আগষ্ট) রাতে জরুরী সভা করে। এ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখন থেকে কমলগঞ্জ পৌরসভা এলাকার কোন ফার্মেসী এখানে দায়িত্বরত ফারিয়ার কোন সদস্যের মাধ্যমে ঔষধ ক্রয় করবেন না। তারা অন্য স্থান থেকে ঔষধ ক্রয় করে রোগীদের সেবা প্রদান করবেন। ফার্মেসী মালিকদের এ সিদ্ধান্তের জবাবে শনিবার বেলা ১১টায় আকস্মিকভাবে কমলগঞ্জ পৌরসভা এলাকায় উচ্চ শব্দে হর্ণ বাজিয়ে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করে ফারিয়ার সদস্যরা। ফলে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিয়ে পাল্টা জবাব হিসাবে বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত কমলগঞ্জ পৌরসভার সকল ফার্মেসী বন্ধ রাখা হয়। আকস্মিকভাবে  সকল ফার্মেসী বন্ধ হলে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিরসনের জন্য কমলগঞ্জ পৌর বণিক সমিতির সভাপতি গোলাম কিবরিয়া (শফি), কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জুয়েল আহমদ, বণিক সমিতির সহ-সভাপতি মামুন-উর-রশীদ, সাধারন সম্পাদক সানোয়ার হোসেন, কমলগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি এম, এ, ওয়াহিদ রুলু ও পৌর কাউন্সিলর গোলাম মুগ্নী (মুহিত)-এর দ্রুত হস্তক্ষেপে উভয় পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে বণিক সমিতির কার্যালয়ে জরুরী বৈঠকে সাময়িকভাবে সমঝোতা হয়। ফারিয়া’র সাধারন সম্পাদক জালাল আহমদ ও নিরাময় ফার্মেসীর মালিক আব্দুর রাজ্জাক রাজা ঘটনার সত্যতা ও তাৎক্ষণিক উভয়পক্ষের মাঝে সমঝোতার সত্যতা নিশ্চিত করেন। কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জুয়েল আহমদও ফার্মেসী মালিক ও ঔষধ বিক্রয় প্রতিনিধিদের মধ্যকার এ বিরোধ ও সাময়িক সমঝোতার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঈদের পর আবার বৈঠক করে স্থায়ীভাবে উভয়পক্ষের স্বার্থ রক্ষা করে একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

Share Button

Comments

comments